মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
পাতা

সিটিজেন চার্টার

উপজেলা ভূমি অফিস, ত্রিশাল, ময়মনসিংহ কর্তৃক প্রদত্ত সেবা সমূহ নিম্নরূপঃ

 

ক) রেকর্ড হাল করণ : সাধরণত নামজারী/ জমা খারিজ/ জমা একত্রীকরণের মাধ্যমে খতিয়ান সংশোধন করে রেকর্ড হালকরণ করা হয়।                                                                                                                                                                                                                                                 নামজারী/ জমাখারিজ/ জমা একত্রীকরণ নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ করে করা হয়ঃ

 ০১। নামাজারি জমাভাগ ও জমা একত্রিকরণ এর জন্য একটি নির্ধারিত ফরমে আবেদকারীকে বা তার প্রতিনিধির মাধ্যমে সহকারী কমিশার (ভূমি) এর নিকট আবেদন  করতে হবে।

০২। আবেদনের মৌজার নাম এস.এ/ বি.আর.এস খতিয়ান নং, দাগ নং জমির পরিমান, দালিল নং ও তারিখ এবং সর্বশেষ খারিজ খতিয়ান (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) নম্বর ও দাগ নং এবং জমির পরিমান যথাযথভাবে উল্লেখ করে আবেদন ফরম দাখিল করতে হবে।

০৩। আবেদন ফরমে আবেদনকারীর পাসপোর্ট সাইজের ১কপি ফটো এবং আবেদনকারী কর্তৃক মনোনীত প্রতিনিধি ক্ষেত্রে প্রতিনিধির ১কপি পাসপোর্ট সাইজের ফটো সংযুক্ত করে আবেদন দাখিল করতে হবে।

০৪। আবেদন পত্রের সাথে সংযুক্ত কাগজপত্র ও তথ্যাদির বিবরণঃ

                ক) সংশ্লিষ্ট খতিয়ানের ফটোকপি/ সার্টিফাইড কপি।

                খ) ওয়ারিশ সনদ পত্র (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে) (অনধিক তিন মাসের মধ্যে ইস্যুকৃত)

                গ) মূল দলিলের সার্টিফাইড কপি/ ফটোকপি।

                ঘ) সর্বশেষ জরিপের পর থেকে বায়া/ পিট দলিল এর সার্টিফাইড/ ফটোকপি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)

                ঙ) ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধের দাখিলা।

                চ) আদালতের রায়/ আদেশ ডিগ্রির সার্টিফাইড কপি (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে)

                ছ) তফছিলে বর্ণিত ভূমির চৌহদ্দিসহ কলমি নক্সা।

০৫। আবেদনকারীর নাম, পূর্ন ঠিকানা, প্রতিনিধির ক্ষেত্রে তার নাম ও পূর্ন ঠিকানা, বয়স, সম্পর্ক ও স্বাক্ষর যা আবেদনকারী কর্তৃক সত্যায়িত যাদের নাম কর্তন হবে তাদের নাম ও পূর্ণ ঠিকানা এবং রেকর্ডীয় মালিকের নাম ও ঠিকানা পূরণ করে আবেদন ফরম দাখিল করতে হবে।

০৬। আবেদনের ক্রম অনুসারে আবেদন নিষ্পত্তি হবে।

০৭। শুনানী গ্রহণ কালে দাখিলকৃত কাগজের মূল কপি সংগে আনতে হবে।

০৮। নামজারী, জমাভাগ ও জমা একত্রিকরণ ফি বাবদ সর্বমোট ২৫০/- (দুইশত পঞ্চাশ) টাকা জমা দিয়ে  ডি.সি. আর সরবরাহ করতে হবে

ক) আবেদন বাবদ কোর্ট ফি - ০৫/- (পাঁচ) টাকা

খ) নোটিশ জারী ফি - ০২/- (দুই) টাকা (অনধিক ৪ (চার) জনের জন্য) ৪ (চার) জনের অধিক প্রতি জনে আরও ০.৫০ টাকা হিসাবে আদায় করা হবে।

গ) রেকর্ড সংশোধন ফি - ২০০/- (দুইশত) টাকা।

ঘ) প্রতি কপি মিউটেশন খতিয়ান ফি - ২৫ + ১৮ = ৪৩/- (তেতাল্লিশ)  টাকা মাত্র।

সর্বমোট =  ২৫০/- (দুইশত পঞ্চাশ) টাকা + নোটিশ জারীর ফি ৪ (চার) জনের অধিক হলে প্রতিজনের জন্য আরও ০.৫০ টাকা হিসাবে আদায় করতে হবে।

০৯। আবেদন নিষ্পত্তির সময়সীমা ৪৫ (পঁয়তাল্লিশ) কার্য দিবস।

১০। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে ইউনিয়ন/ সার্কেল ভূমি অফিসে দখল/ প্রয়োজনীয় মালিকানার রেকর্ড পত্র দেখাতে হবে।

১১। প্রয়োজনীয় সহযোগীতা ও যে কোন অভিযোগের ক্ষেত্রে সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর সহিত যোগাযোগ করতে হবে।

১২। সরকারী স্বার্থ জড়িত না থাকলে সর্বশেষ নামজারির ভিত্তিতেই নামজারি করা হবে। সেক্ষেত্রে নামজারিকৃত সর্বশেষ খতিয়ান ছাড়া অন্য কোন কাগজপত্রের প্রয়োজন হবে না।

১৩। ফরমের জন্য কোন ফি প্রয়োজন হবে না ভূমি মন্ত্রণালয়ের  Website (w.w.w minland.gov.bd)থেকে ফরম ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে।

১৪। SMSএর মাধ্যমে শুনানির তারিখ বা তথ্য জানতে চাইলে প্রতিক্ষেত্রে এর জন্য ২/- (দুই) টাকা অতিরিক্ত প্রদান করতে হবে।

 

খ) কৃষি খাস জমি বন্দোবস্ত সংক্রান্তঃ ভূমিহীন কৃষকদের মধ্যে কৃষি খাস জমির প্রাপ্যতা সাপেক্ষে নিম্নোক্ত পদ্ধতি অনুসরণ করে বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়।

 

০১। নির্ধারিত ফরমে খাস জমি বন্দোবস্তের জন্য আবেদন করতে হবে। আবেদন ফরম উপজেলা ভূমি অফিসে পাওয়া যাবে।

০২। স্বামী-স্ত্রীর যৌথ ছবি/ বিধবা/ স্বামী পরিত্যক্তার ছবি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান অথবা মেয়র/ কাউন্সিলর, পৌরসভা কর্তৃক সত্যায়িত করে আবেদন পত্রের সাথে সংযুক্ত করতে হবে।

০৩। উপজেলা কৃষি খাস জমি ব্যবস্থাপনা ও বন্দোবস্ত কমিটির সভায় অনুমোদিত হলে ২১ দিনের মধ্যে কেস রেকর্ড সৃজন করে তা অনুমোদনের জন্য উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার নিকট প্রেরণ করতে হবে।

০৪। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ২১ দিনের মধ্যে জেলা প্রশাসকের নিকট প্রেরণ করবেন।

০৫। জেলা প্রশাসক ৩০ দিনের মধ্যে উহা জেলা কমিটিতে পেশ করিবেন এবং কমিটিতে অনুমোদিত হলে সহকারী কমিশনার (ভূমি) এর নিকট ফেরৎ পাঠাইবেন।

০৬। নথি ফেরৎ পাবার ১৫ দিনের মধ্যে সহকারী কমিশনার (ভূমি) ১/- (এক) সেলামীর বিনিময়ে কবুলিয়ত সম্পাদন করিয়ে দিবেন। এর ১৫ দিনের মধ্যে উপজেলা কমিটি বন্দোবস্ত প্রাপকের অনুকূলে জমির দখল বুঝিয়ে দিবেন।

০৭। কবুলিয়ত সম্পাদনের পর ১৫ দিনের মধ্যে খতিয়ান সৃজন করে পর্চা বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

 

গ) ভূমি হুকুম দখল সংক্রান্ত কার্যাবলীঃ অধিগ্রহণ সংক্রান্ত বিভিন্ন তথ্য প্রদানের মাধ্যমে বিশেষত: অধিগ্রহণকৃত ভূমির ক্ষতিপূরণ গ্রহণকালে অত্রাফিস থেকে সরকারী স্বার্থ সংশ্লিষ্ট রিপোর্ট প্রদান এবং ভূমি উন্নয়ন করের দাখিলা প্রদানের মাধ্যমে ক্ষতিপূরণ গ্রহণকারীদেরকে সহায়তা করা হয়।

 

ঘ) অর্পিত সম্পত্তির ইজারা নবায়ন সংক্রান্তঃ

০১। ইজারা গ্রহীতার আবেদনের প্রেক্ষিতে নবায়ন কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।

০২। ১৯৯০/১৯৯৫ এর পরিপত্রের আলোকে দাবী নির্ধারণ করে ইতোমধ্যে লীজ গ্রহীতার নিকট দাবীর পরিমাণ জানিয়ে নোটিশ দেয়া হয়েছে।

০৩। দাবীর টাকা ৬-৪৬৩১-০০০০-৮৪২৩ কোড নং চালানের মাধ্যমে জমা প্রদান করে নবায়ন করতে হবে।

০৪। ইজারার অর্থ পরিশোধ সাপেক্ষে নবায়ন করা না হলে সেইরূপ অবৈধ দখলদারকে উচ্ছেদের আইনগত কার্যক্রম গ্রহন করা হবে।

ঙ) ভূমি উন্নয়ন কর সংক্রান্তঃ

০১। ভূমি উন্নয়ন কর সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি অফিস ধার্য করে।

০২। সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তার নিকট ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করতে হবে।

০৩। ৮.২৫ একর পর্যন্ত ভূমি মালিকের খাজনা মওকুফ করা হয়েছে।

০৪। ব্যবহার ভিত্তিক ভূমি উন্নয়ন কর পরিশোধ করতে হবে।

০৫। ভূমি উন্নয়ন কর ধার্যের বিষয়ে কারো কনো আপত্তি থাকলে সহকারী কমিশনার ভূমির নিকট আপত্তি দাখিল করতে হবে।

চ) হাট বাজার সংক্রান্ত:

০১। ক্যালেন্ডার ভূক্ত হাট বাজার এর পেরিফেরি নকসা প্রস্ত্তত করে জেলা প্রশাসক মহোদয় কর্তৃক অনুমোদন  করিয়ে বন্দোবস্ত যোগ্য খাস জমি নীতিমালা অনুযায়ী একসনা (লাইন্সেস ভিত্তিক) ইজারা প্রদান করে রাজস্ব আদায় বৃদ্ধি করা হয়।

০২। ৩০শে চৈত্রের মধ্যে কেহ আবেদন করলে তাকে পরবর্তী বৎসরের জন্য নবায়ন করে দেয়া হয় নতুবা ইজারা বাতিল করা হয়।

 

ছ) জল মহাল ব্যবস্থাপনাঃ ‘‘জাল যার জলা তার’’ সরকার ঘোষিত এই নীতিমালার আলোকে প্রকৃত মৎস্যজীবিদের মধ্যে সরকারী জল মহাল ইজারা প্রদান করা হয়। পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে উম্মুক্ত প্রতিযোগিতার ভিত্তিতে জল মহাল ইজারা প্রদান করা হয়। যার ফলে মৎস্যজীবিরা তাদের ভাগ্য উন্নয়নের  যোগ পাচ্ছেন।

 

জ) বালু মহাল ব্যবস্থাপনাঃ বালু মহাল ইজারা কার্যক্রমের সহায়ক হিসেবে বালু মহলের অবস্থান ও পরিমাপ সম্পর্কে জেলা প্রশাসক মহোদয় কে তথ্য প্রদান করা হয় এবং ইজারা গ্রহীতা কে সরেজমিনে দখল বুঝিয়ে দেয়ার মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সেবা প্রদান করা হয়।

       

ঝ) আশ্রায়ন সংক্রান্তঃ ভূমিহীন, গৃহহীন, দুর্দশাগ্রস্ত ও ছিন্নমুল পরিবারকে পূর্নবাসন করার লক্ষ্যে খাস জমি, রিজিউমকৃত জমি কিংবা দানকৃত জমির উপর ব্যারাক হাউজ/ ঘর নির্মান করে নীতিমালা অনুযায়ী বন্দোবস্ত প্রদান করা হয়।

 

ঞ) বিবিধঃ

০১। ভূমি অফিসের কার্যক্রমে সংক্ষুব্ধ/ অসন্তোষ্ট যে কোন ব্যক্তি সহাকারী কমিশনার (ভূমি)/ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা/ অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব)/ জেলা প্রশাসকের নিকট অভিযোগ দায়ের করতে পারেন। কোন অভিযোগ পাওয়া গেলে তা দ্রুততম সময়ের মধ্যে নিষ্পত্তি করা হয়।

০২। ভূমি সংক্রান্ত অন্য যেকোন সেবার জন্য উপজেলা ভূমি অফিসে যোগাযোগ করতে হবে অথবা নিম্নোক্ত নম্বরে কল করতে হবে।

 

 

সহকারী কমিশনার (ভূমি)

ফোন নং ০৯০৩২-৫৬০৫৯ (অফিস)